প্রেস প্রবন্ধসমূহ

‘৮ লাখ ৬০ হাজারই ছিল অপ্রয়োজনীয়’

দেশে গত বছর (২০১৮) প্রসবকালে আট লাখ ৬০ হাজার প্রসূতির অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। অথচ প্রয়োজন থাকার পরও বছরে প্রায় তিন লাখ নারী খরচের অভাবে প্রসবকালীন অস্ত্রোপচার করাতে পারছেন না। অন্যদিকে ২০১৬ থেকে ২০১৮-এ অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচারের হার ৫১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সেভ দ্য চিলড্রেনের সর্বশেষ এক আন্তর্জাতিক বিশ্নেষণ প্রতিবেদনে এমন চিত্র উঠে এসেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমের জন্য এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মা ও শিশু দুজনের ঝুঁকির কথা জেনেও দেশের ধনিক শ্রেণির মধ্যে রেকর্ডসংখ্যক মানুষ অস্ত্রোপচারের দিকে ঝুঁকছে।

সেভ দ্য চিলড্রেনের তথ্যে জানানো হয়, ২০১৮ সালে বাংলাদেশি বাবা-মায়েরা অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচারের পেছনে খরচ করেছেন ৪৮৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। গড় হিসাবে জনপ্রতি এই খরচ দাঁড়ায় ৬১২ মার্কিন ডলার। এ ছাড়া ২০১৮-এ প্রসবকালীন অস্ত্রোপচারের মধ্যে ৭৭ শতাংশ অর্থাৎ আট লাখ ৬০ হাজার অস্ত্রোপচার হয়েছে অপ্রয়োজনে। ২০১৬ সালে এই সংখ্যা ছিল পাঁচ লাখ ৭০ হাজার। দুই বছরে বৃদ্ধির হার ৫১ শতাংশ। ২০০৪ থেকে ২০১৬ সালে বাংলাদেশে প্রসবকালীন অস্ত্রোপচার ৪ শতাংশ  থেকে বৃদ্ধি হয়েছে ৩১ শতাংশে।

সেভ দ্য চিলড্রেন ইন বাংলাদেশের ডেপুটি কান্ট্রি ডিরেক্টর এবং নবজাতক ও মাতৃস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. ইশতিয়াক মান্নান কালের কণ্ঠ’কে বলেন, ‘অস্ত্রোপচারের নেতিবাচক এমন পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে, দিনে দিনে মায়েরা আরো বেশি অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচারের দিকে ঝুঁকছেন। এটি খুবই বিপজ্জনক।’

ছবি: সেভ দ্য চিলড্রেন
বিস্তারিত পড়ুন: https://bit.ly/2J0ejkF

হটলাইন নম্বর
xxxxx